পরিত্রাণের উপায় কি

অনেকেই প্রশ্ন করে-
“বর্তমানে মুসলমানদের তো অনেক কঠিন পরিস্থিতি। এই কঠিন পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের উপায় কি ?”

আমি বলবো- এর উত্তর পবিত্র কুরআন পাকে আছে। কুরআন পাকের প্রথম সূরা ফাতেহার মধ্যে আছে। সূরা ফাতেহায় মহান আল্লাহ মুসলমানদের এভাবে দু’য়া করতে বলেছেন-

“ হে আল্লাহ, আমাদেরকে সরল পথ দেখান। সে সমস্ত লোকের পথ, যাদেরকে আপনি নেয়ামত দান করেছেন। (সূরা ফাতেহা ৫-৬) অর্থাৎ নিয়ামতপ্রাপ্ত ব্যক্তি মানে নবী-রাসূল ও বুজুর্গদের পথ চাইতে হবে।  (“মহান আল্লাহ তায়ালা নিয়ামত দান করেছেন- নবী, সিদ্দিক, শহীদ, সলেহকে।”—সুরা নিসা: ৬৯)

আবার বলছেন-
“তাদের পথ দিবেন না, যারা গজবপ্রাপ্ত ও বিভ্রান্ত”। (সূরা ফাতিহা: ৭)— অর্থাৎ ইবলিশ শয়তান ও কাফির-মুশরিকদের পথ থেতে পানাহ চাইতে হবে।

সংক্ষেপে বলতে- কাফিরদের পথে চলা যাবে না, নবী-রাসূল-বুজুর্গের পথে চলতে হবে। তবেই মুসলমানদের বর্তমান কঠিন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ।

আসলে বর্তমানে মুসলমানরা অনেক গুনাহখতা করে ফেলেছে। অনেক ভুল করেছে ফেলেছে। সর্বক্ষেত্রে কাফিরদের গোলাম হয়ে গেছে। এই কারণেই মুসলমানদের এ করুণ অবস্থা। এজন্য গুনাহ থেকে আগে ক্ষমা চাইতে হবে, তওবা করতে হবে। কোন ভাবেই কাফিরদের অনুসরণ করা চলবে না। কুরআন হাদীসকে শক্তভাবে আকড়ে ধরতে হবে, এগুলো করতে পারলেই মুসলমানদের উপর মহান আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে গায়েবী মদদ হবে । আর আল্লাহ তায়ালা’র গায়েবী মদদ ছাড়া বর্তমান মুসলমানদের পরিত্রাণের আর কোন উপায় নেই।

Advertisements