হিন্দু শব্দের অর্থ

অভিধানগুলোতে ‘হিন্দু’ শব্দটির বেশ কিছু
সুন্দর সুন্দর অর্থ আছে। আসুন, ফার্সী ভাষা
হতে আগত এ শব্দটির কিছু অর্থ দেখি—-
১. হিন্দু বা হিদেন-এর সহজ বাংলা অর্থ
হচ্ছে- অধার্মিক, নিম্নস্তরের ধর্মাবলম্বী
জাতিভুক্ত ব্যক্তি, অসভ্য বা বর্বর ব্যক্তি,
রুক্ষ, নিষ্ঠুর, ম্লেছ প্রভৃতি। (সূত্র : Samsad
English-Bangali Dictorery, Fifth edition, 1976, p.
504)
২. হিন্দু শব্দের অর্থ- অবিশ্বাসী, দাস ও
ক্রীতদাস। (সূত্র : ফার্সী অভিধান হাফত
কুলযুম, ৩য় খ-, পৃ-৯৮)
৩. হিন্দু শব্দের অর্থ- চোর, চৌকিদার, দাস
ও ক্রীতদাস। এখানে আরো উল্লেখ আছে
ভারতের বাসিন্দাদের হিন্দি বলা হয়;
হিন্দু নয়। (সূত্র : ফার্সী অভিধান বাহরে
আযম, ২য় খন্ড, পৃ-৪৯৭)
৪. হিন্দু শব্দের অর্থ- চোর, ডাকাত,
ছিনতাইকারী ও গোলাম। (সূত্র : ফার্সী
অভিধান- লোগাতে কিশওয়ারী, পৃ. ৮২১-
২২)
হিন্দুদের
জাতিগত কিছু আচরণ বা কাজ প্রায়শঃই
আমাকে অবাক করে দেয়।
আমি ভাবি, “আচ্ছা ! এ জাতির অন্তরে
দয়া-মায়া বলে কি কিচ্ছু নাই ? এত নিষ্ঠুর
কেন এরা ?
যে বাবা-মা দিনের পর দিন খাওয়ালো,
দিনের পর দিন পরালো, দিনের পর দিন
আদর-যত্ন করলো, তারা মারা যাওয়ার পর
তাদের মুখে আগুন দেয় কিভাবে ?”
শুধু কি আগুন ? আগুন দেওয়ার সাথে সাথে
যখন রগ টানা লেগে মৃতদেহ দাড়িয়ে যায়,
তখন লাঠিয়াল বাহিনী দিয়ে সজোরে
শুরু হয় পেটানো, পিটিয়ে পিটিয়ে হাড়
গোর একাকার করা, মাথার খুুলি ফাটিয়ে
দু’টুকরো করা, এ কেমন অমানবিকতা ?এ
কেমন অসভ্যতা, এ কেমন অত্যাচার ?
আজকে দেখলাম, সংসদে গরুর
জন্য ভালোবাসায় মরিয়া হয়ে উঠেছে
হিন্দুত্ব এমপিরা। গো-মাতার জন্য মুসলিম
এমপিদের সংসদের মধ্যেই ধরে ধরে
পেটাচ্ছে তারা ( https://goo.gl/7kCjYF )।
তবে, সব ভালোবাসা কি শুধু গো-মাতার
জন্যই ? নিজ বাবা-মা’র জন্য কি কোন
ভালোবাসা অবশিষ্ট নেই ? যদি
ভালোবাসা থাকেই, তবে কি করে বাবা-
মা’র মুখে আগুন দেয়া যায়, কিভাবে
লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হাড়-গোর একাকার
করা যায় ?
একারণেই আমি যখন গুজরাটে গণহত্যা
দেখি, মুজাফফরনগরে গণহত্যা দেখি,
বাবরী মসজিদ নিয়ে গণহত্যা দেখি, তখন
অবাক হই না।
কেবল একটি কথাই ভাবি, জাতিগত
নিষ্ঠুর, জাতিগত বর্বর, জাতিগত
অত্যচারি তাদের পক্ষেই কেবল এধরনের
গণহত্যা ঘটানো সম্ভব। যারা নিজ বাবা-
মাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মাথা
দু’ভাগ করতে পারে, তাদের দ্বারা
দুনিয়ায় আর অসাধ্য বলে কিছু থাকে না।
লেখার শেষে এসে, শুরুতে উল্লেখিত
হিন্দু শব্দের অর্থগুলোর দিকে আবার
তাকান, দেখুন-
হিন্দু = অসভ্য, হিন্দু = বর্বর, হিন্দু = রুক্ষ ,
হিন্দু = নিষ্ঠুর।
আর কিছু বলার নাই।
….