Uncategorized

জনৈক ছাত্রের যে কবিতাটি শুনে ইমাম আহমাদ [রাহিমাহুল্লাহ] কেঁদেছিলেনঃ👇

জনৈক ছাত্রের যে কবিতাটি শুনে ইমাম আহমাদ [রাহিমাহুল্লাহ] কেঁদেছিলেনঃ👇
.
.
💦আমার রব্ব যদি জিজ্ঞাসেন,আমার অবাধ্যতায় লজ্জিত হও কি ?
আমার সৃষ্টিকূলের সামনে পাপগুলো লুকাও,আমার সামনে নিয়ে আসো ঠিকই।।
.
কী দিবো জবাব,হায় পরিতাপ!! কে বাঁচাবে আমায় !
নিজেকে বুঝাই সময়ে সময়ে মিথ্যামিথ্যি আশায়।।
.
কী হবে মরার পর?
যখন দেওয়া হবে কবর?
.
যেন আমার অশেষ আয়ু,মরণ কখনো আসবে না,
কিন্তু যখন আসবে মৃত্যু,কেউ বাঁচাতে পারবে না।।
.
চেহারাগুলো দেখে ভাববো কে দেবে মুক্তিপণ??
জিজ্ঞাসিত হব আমি কী করেছি আজীবন?
.
কী দেবো জবাব-ভুলেছি নিজের দ্বীন?
শুনতে কি পাইনি আল্লাহ্‌র কালাম ?
শুনতে কি পাইনি সূরা ক্বাফ,ইয়াসীন?
.
জানিনাই কি,কেয়ামত-হাশর,শেষ বিচারের দিন?
শুনিনাই কি মৃত্যুর পদধ্বনি?
.
তাওবা করছি হে রব্ব,তোমার বান্দা আমি।।
অতএব কে বাঁচাবে আমায় ?
আছেন শুধু মহাক্ষমাশীল রব্ব; যিনি সত্যের দিকে দেখাবেন পথ।।
তোমারই কাছে এসেছি ফিরে,হে রব্ব!
করছি তাওবা তোমারই কাছে,দাও মীযান ভারী করে।।
.
সহজ করে দাও হিসাব আমার,
তুমিই তো সেরা প্রভুর প্রভু,বিচারক হাশরের।।💦

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s